এশিয়া কাপে পাকিস্তানকে হারানোর লক্ষ্যে যে দুই জায়গায় সাফল্যের প্রয়োজন টিম ইন্ডিয়ার

সেপ্টে. 1, 2023

No tags for this post.
Spread the love

Rohit Sharma & Babar Azam. ( Image Source: Twitter )

২৪ ঘন্টা পরই  এশিয়া কাপের মঞ্চে সবেয়েহাই ভোল্টেজ ম্যাচে মুখোমুখি হতে চলেছে ভারত ও পাকিস্তান। সেই ম্যাচ ঘিরে এই মুহূর্তে  উত্তেজনার পারদ তুঙ্গে পৌঁছেছে। শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতিতেই ব্যস্ত রয়েছেন দুই দলের তারকা ক্রিকেটাররা। ২০২২ সালের টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মঞ্চে শেষবার মুখোমুখি হয়েছিল ভারত ও পাকিস্তান। সেখানে বিরাট কোহলির দুরন্ত পারফরম্যান্সে ভর করেই জয় তুলে নিয়েছিল টিম ইন্ডিয়া। সেখানেই শেষপর্যন্ত কী হয় সেটাই দেখার অপেক্ষায় রয়েছেন সকলে।

গতবারের মতো এবারও যে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতীয় দলের অন্যতম প্রধান ভরসা বিরাট কোহলি তা বলার অপেক্ষা রাখে না। সেইসঙ্গে রোহিত শর্মা এবং শুভমন গিলের থেকেও একটা ভাল ওপেনিং পার্টনারশিপ চাইছে টিম ইন্ডিয়া শিবির। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে কয়েকটি জায়গাতেই সবকিছু ঠিকভাবে করতে পারকলে সাফল্য ভারতের পক্ষে আসবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। যার মধ্যে ভারতীয়দের টপ অর্ডারের পারফরম্যান্সই যে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সাফল্যের প্রধান অস্ত্র তা বলাই বাহুল্য।

বিশেষ করে রোহিত শর্মা ও শুভমন গিলের ওপেনিং পার্টনারশিপের দিকেই তাকিয়ে রয়েছেন সকলে। সম্প্রতি পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতীয় দলের ওপেনিং সেভাবে  পারফরম্যান্স দেখাতে পারেনি। শাহিন আফ্রিদি কাঁটাতেই বারবার আটকে গিয়েছেন তারা। এই ম্যাচে শাহিনের বিরুদ্ধে ভারতের ওপেনিং জুটির সাফল্য ভারতকে এগিয়ে দিতে পারে। একইসঙ্গে জসপ্রীত বুমরার হাত থেকেও দুরন্ত বোলিং পারফরম্যান্সের অপেক্ষায় রয়েছেন সকলে। বরাবরই প্রতিপক্ষ ব্যাটারদের বিরুদ্ধে বল হাতে ত্রাস হয়ে উঠেছেন জসপ্রীত বুমরাহ। চোট সারিয়ে এশিয়া কাপের মঞ্চে ফিরেছেন জসপ্রীত বুমরাহ। সেখানেও যদি তাঁকে পুরনো ছন্দে দেখা যায়, তবে ভারত যে পাকিস্তানের থেকে খানিকটা হলেও এগিয়ে থাকবে।

১. শাহিন আফ্রিদির বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিরোধঃ ওপেনিং জুটির পারফরম্যান্স

Shubman Gill and Rohit Sharma. (Photo Source: BCCI)

ভারতীয় দলের ওরপেনিং জুটি তাদের সাফল্যের অন্যতম প্রধািন স্তম্ভ তা বলার অপেক্ষা রাখে না। বিশেষ করে সম্প্রতি শুভমন গিল যে ফর্মের মধ্যে রয়েছেন তা দেখের পর তাঁকে নিয়ে এই মুহূর্তে সকলেই বেশ আশাবাদী। তবে ভারতীয় শিবিরের ভাবনার জায়গা একটাই। তা হল শাহিন আফ্রিদির পারফরম্যান্স। সম্প্রতি বাঁ হাতি বোলারদের বিরুদ্ধে সমস্যায় পড়তে দেখা গিয়েছে ভারতীয় দলের টপ অর্ডারকে। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতীয় দলকে যে প্রথম চ্যালেঞ্জটা ছুঁড়ে দেবেন শাহিন আফ্রিদি তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

২০২১ সালের টি টোয়েন্টিতে ষশাহিন আফ্রিদির ধাক্কাতেই ধসে গিয়েছিল ভারতীয়দলের ব্যাটিং লাইনআপ।  ২০২২ সালে উইকেট না পেলোও, শাহিন আফ্রিদির বোলিং ভারতীয় দলকে চাপে রেখেছিল। সেই শাহিন আফ্রিদির বিরুদ্ধে ভারতীয় দলের ওপেনিং জুটি যদি  প্রথম থেকেই প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারে, তবে ভারতীয় দলের আআত্মবিশ্বাস অনেকটাই বেড়ে যাবে।

ওপেনিংয়ে একটা ভাল পার্টনাারশিপই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতীয় দলের সাফল্যের অন্যতম প্রধান চাবিকাঠি হয়ে উঠতে পারে। সেইজন্য রোহিতশর্মা ও শুভমন গিলের ওপর যে দায়িত্ব খানিকটা বেশী রয়েছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। শেষপর্যন্ত কী হয় সেটাই দেখার অপেক্ষায় রয়েছেন সকলে।

২. জসপ্রীত বুমরার পারফরম্যান্স

Jasprit Bumrah. (Photo Source: Twitter)

ভারতীয় দলের হয়ে এই এশিয়া কাপের অন্যতনম চাবিকাঠি জসপ্রীত বমরাহ। তাঁর দুর্ধর্ষ বোরলিং, পেস, ইয়র্কার দেওয়ার দক্ষতা সম্বন্ধে সকলেই অবগত রয়েছেন। বিশ্ব ক্রিকেটে তারকা ক্রিকেটাররা জসপ্রীত বুমরাহকে সমীহ করেই চলেন। এই এশিয়া কাপেও যে জসপ্রীত বুমরাহ ভারতীয় দলের অন্যতম প্রধান অস্ত্র তা বলার অপেক্ষা রাখে না। কিন্তু পাকিস্তানের বিরুদ্ধে জসপ্রীত বুমরার পরিসংখ্যান কিন্তু খুব একটা ভাল নয়। বিশেষ করে ২০২১ সালের টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে জসপ্রীত বুমরাহ  বাবর আজম, মহম্মদ রিজওয়ানদের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত ব্যর্থ হয়েছিলেন।

তবে এদিন যদিজসপ্রীত বুমরাহ তাঁর পুরনো ছন্দে থাকেন, তবে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতীয় দল অ্যাডভান্টেজ পেতেই পারে। বিশেষ করে শুরুতেই জসপ্রীত বুমরার উইকেট তুলে নেওয়ার দক্ষতা এবং পার্টনারশিপ ভাঙার কাজটা যদি তিনি নিখুঁতভাবে করতে পারেন তবে ভারতীয়. দল যে এগিয়ে থাকবে তা বলাই বাহুল্য।

পাকিস্তানের মিডল অর্ড়ারের ব্যাটিং লাইনআপ অত্যন্ত শক্তিশালী। সেখানে জপ্রীত বুমাই ভারতীয় দলের প্রধান শক্তি হয়ে উঠতে পারে। বিশেষ করে ডেথ ওভারে জসপ্রীত বুমরার বোলিং পারফরম্যান্সই পাকিস্তানের ব্যাটারদের আটকানোর জন্য প্রধান অস্ত্র টিম ইন্ডিয়ার হাতে। ২ সেপ্টেম্বর কী হয় সেদিকেই এখন তাকিয়ে রয়েছেন সকলে।

The post এশিয়া কাপে পাকিস্তানকে হারানোর লক্ষ্যে যে দুই জায়গায় সাফল্যের প্রয়োজন টিম ইন্ডিয়ার appeared first on CricTracker Bengali.

Subscribe to Telegram
শীঘ্রই শুরু হতে যাচ্ছে আইসিসি বিশ্বকাপ! প্রারম্ভিক একচেটিয়া উপহারের জন্য এখনই MCW-তে সদস্যতা নিন!
অ্যাটলেটিকো ডি মাদ্রিদ আনুষ্ঠানিক আঞ্চলিক পার্টনার হিসাবে মেগা ক্যাসিনো ওয়ার্ল্ড (MCW) ঘোষণা করেছে।
বুন্দেসলিগা ইন্টারন্যাশনাল এশিয়ার মেগা ক্যাসিনো ওয়ার্ল্ডের সাথে একটি আঞ্চলিক অংশীদারিত্বে সম্মত হয়েছে
প্রিটোরিয়া ক্যাপিটালস SA20 এর দ্বিতীয় সিজনের জন্য প্রধান অংশীদার হিসাবে মেগা ক্যাসিনো ওয়ার্ল্ডকে ঘোষণা করেছে
Mega Casino World Anrich Nortje কে নতুন ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে ঘোষণা করেছে
MCW Sports Joins Gladiators’ Family as Platinum Sponsor for PSL8
MCW Sports - Ambassador