ওডিআই বিশ্বকাপের মঞ্চে ভারতের পাঁচটি স্মরণীয় ম্যাচের ব্যাপারে জেনে নিন

সেপ্টে. 9, 2023

No tags for this post.
Spread the love

Sourav Ganguly, Rahul Dravid, Kapil Dev and MS Dhoni. (Photo Source: Twitter)

ভারত এখনও পর্যন্ত দুইবার ওডিআই বিশ্বকাপের ট্রফি জিতেছে। ১৯৮৩ সালে কপিল দেবের নেতৃত্বে প্ৰথম বিশ্বকাপ ট্রফিটি জিতেছিল ভারত। এরপর ২০১১ সালে মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে দ্বিতীয়বারের জন্য ওডিআই বিশ্বকাপের শিরোপা জিতেছিল ভারতীয় দল।

৫ই অক্টোবর থেকে ভারতে ওডিআই বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে। দেশের মাটিতে বিশ্বকাপ জয় করাই হল এখন ভারতীয় দলের প্রধান লক্ষ্য। ওডিআই বিশ্বকাপের মঞ্চে ভারতের অনেক স্মরণীয় ম্যাচ রয়েছে। এখন এর মধ্যে থেকে পাঁচটি স্মরণীয় ম্যাচের ব্যাপারে জেনে নেওয়া যাক।

১. ১৯৮৩ সালের বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচ – ভারত বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ

Kapil Dev. (Photo Source: Twitter)

১৯৮৩ সালে ভারত প্রথমবারের জন্য বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছিল। ফাইনাল ম্যাচটিতে প্ৰথমে ব্যাটিং করেছিল কপিল দেবের নেতৃত্বাধীন ভারত। তবে তারা খুব বেশি রান করতে পারেনি। ভারত ৫৪.৪ ওভারে মাত্র ১৮৩ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল। ভারতীয় দলের হয়ে সর্বোচ্চ রান করেছিলেন কৃষ্ণমাচারি শ্রীকান্ত। তিনি ৫৭ বলে ৩৮ রান করতে সক্ষম হয়েছিলেন।

রান তাড়া করতে নেমে ভারতের বোলিং আক্রমণের দাপটে ৫২ ওভারে ১৪০ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তাদের হয়ে সর্বোচ্চ রান করেছিলেন ভিভ রিচার্ডস। তিনি ২৮ বলে ৩৩ রান করেছিলেন। এই ম্যাচটিতে ম্যাচসেরার পুরস্কার পেয়েছিলেন মহিন্দর অমরনাথ। তিনি ব্যাট হাতে ৮০ বলে ২৬ রান করেছিলেন এবং বল হাতে ৭ ওভারে ১২ রান দিয়ে ৩টি নিয়েছিলেন।

২. ১৯৯৬ সালের বিশ্বকাপের কোয়ার্টার-ফাইনাল ম্যাচ – ভারত বনাম পাকিস্তান

Venkatesh Prasad. (Photo Source: Twitter)

ভারত বনাম পাকিস্তানের ম্যাচ সবসময়ই উত্তেজনাপূর্ণ হয়। ওডিআই বিশ্বকাপ ১৯৯৬-এর কোয়ার্টার-ফাইনালে তা আরও উত্তেজনাপূর্ণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল। ভারত প্ৰথমে ব্যাটিং করে স্কোরবোর্ডে ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে ২৮৭ রান তুলেছিল। ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ রান করেছিলেন নভজ্যোত সিং সিধু। তিনি ১১টি চার সহ ১১৫ বলে ৯৩ রান করেছিলেন।

পাকিস্তান ৪৯ ওভারে ৯ উইকেটে ২৪৮ রান করতে সক্ষম হয়েছিল এবং ভারত ৩৯ রানে ম্যাচটি জিতে নিয়েছিল। ভেঙ্কটেশ প্রসাদ এবং অনিল কুম্বলে ৩টি করে উইকেট নিয়েছিলেন। এই ম্যাচে ম্যাচসেরা হয়েছিলেন নভজ্যোত সিং সিধু।

৩. ১৯৯৯ সালের বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের ম্যাচ – ভারত বনাম শ্রীলঙ্কা

Sourav Ganguly and Rahul Dravid. (Photo Source: Twitter)

এই ম্যাচটিতে ভারত ৫০ ওভারে ৬ উইকেটে ৩৭৩ রান করেছিল। সৌরভ গাঙ্গুলী এবং রাহুল দ্রাবিড় মিলে ৩১৮ রানের একটি অনবদ্য পার্টনারশিপ করেছিলেন। এটি ছিল ওডিআই ক্রিকেটের ৩০০ বা তার অধিক রানের পার্টনারশিপ। সৌরভ ওডিআই ক্রিকেটে নিজের সর্বোচ্চ রান এই ম্যাচেই করেছিলেন। তিনি ১৫৮ বলে ১৮৩ রানের একটি দুর্ধর্ষ ইনিংস খেলেছিলেন। অন্যদিকে, দ্রাবিড় ১২৯ বলে ১৪৫ রানের একটি অসাধারণ ইনিংস খেলেছিলেন।

শ্রীলঙ্কা ৪২.৩ ওভারে ২১৬ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল। ভারত ১৫৭ রানে জয় পেয়েছিল। রবিন সিং ৯.৩ ওভারে ৩১ রান দিয়ে ৫ উইকেট শিকার করেছিলেন। এই ম্যাচে সৌরভ গাঙ্গুলীকে ম্যাচসেরার পুরস্কার দেওয়া হয়েছিল।

৪. ২০০৩ সালের বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের ম্যাচ – ভারত বনাম ইংল্যান্ড

Ashish Nehra. (Photo Source: Twitter)

গ্রুপ পর্বের এই ম্যাচটিতে প্ৰথমে ব্যাটিং করে স্কোরবোর্ডে ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ২৫০ রান তুলেছিল সৌরভ গাঙ্গুলীর নেতৃত্বাধীন ভারত। রাহুল দ্রাবিড় ৭২ বলে ৬২ রান করেছিলেন। সচিন তেন্ডুলকার ৫২ বলে ৫০ রান করতে সক্ষম হয়েছিলেন।

এই ম্যাচে বল হাতে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের প্রদর্শন করেছিলেন আশিস নেহরা। ভারতের জয়ের পিছনে তিনি সবথেকে বড় অবদান রেখেছিলেন। তিনি ১০ ওভারে মাত্র ২৩ রান দিয়ে ৬ উইকেট শিকার করেছিলেন এবং ম্যাচসেরার পুরস্কার পেয়েছিলেন। ইংল্যান্ড ৪৫.৩ ওভারে মাত্র ১৬৮ রানে অলআউট হয়ে গিয়েছিল। ভারতীয় দল ম্যাচটিতে ৮২ রানে জয় পেয়েছিল।

৫. ২০১১ সালের বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচ – ভারত বনাম শ্রীলঙ্কা

MS Dhoni. (Photo Source: Twitter)

ওডিআই বিশ্বকাপ ২০১১-এর ফাইনাল ম্যাচটি ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। অর্থাৎ, ভারতীয় দল তাদের ঘরের মাঠে ম্যাচটি খেলতে পেরেছিল। শ্রীলঙ্কা ভারতের সামনে ২৭৫ রানের লক্ষ্য রেখেছিল। মাহেলা জয়বর্ধনে একটি দুরন্ত শতরান করেছিলেন। তিনি ৮৮ বলে ১০৩ রান করে অপরাজিত ছিলেন।

ভারত শুরুতেই বীরেন্দ্র সেহওয়াগ এবং সচিন তেন্ডুলকারের উইকেট হারিয়ে ফেলেছিল। এরপর গৌতম গম্ভীর এবং বিরাট কোহলি মিলে পরিস্থিতি সামাল দিয়েছিলেন। কোহলি আউট হওয়ার পর গম্ভীর এবং এমএস ধোনির মধ্যেও একটি গুরুত্বপূর্ণ পার্টনারশিপ গড়ে উঠেছিল। গম্ভীর ১২২ বলে ৯৭ রানের একটি দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছিলেন। অন্যদিকে, ধোনি ৭৯ বলে অপরাজিত ৯১ রান করেছিলেন এবং ম্যাচসেরার পুরস্কার জিতেছিলেন। ভারত ১০ বল বাকি থাকতেই ৪ উইকেটে ২৭৭ রানে পৌঁছে ম্যাচটি জিতে নিয়েছিল।

The post ওডিআই বিশ্বকাপের মঞ্চে ভারতের পাঁচটি স্মরণীয় ম্যাচের ব্যাপারে জেনে নিন appeared first on CricTracker Bengali.

Subscribe to Telegram
শীঘ্রই শুরু হতে যাচ্ছে আইসিসি বিশ্বকাপ! প্রারম্ভিক একচেটিয়া উপহারের জন্য এখনই MCW-তে সদস্যতা নিন!
অ্যাটলেটিকো ডি মাদ্রিদ আনুষ্ঠানিক আঞ্চলিক পার্টনার হিসাবে মেগা ক্যাসিনো ওয়ার্ল্ড (MCW) ঘোষণা করেছে।
বুন্দেসলিগা ইন্টারন্যাশনাল এশিয়ার মেগা ক্যাসিনো ওয়ার্ল্ডের সাথে একটি আঞ্চলিক অংশীদারিত্বে সম্মত হয়েছে
প্রিটোরিয়া ক্যাপিটালস SA20 এর দ্বিতীয় সিজনের জন্য প্রধান অংশীদার হিসাবে মেগা ক্যাসিনো ওয়ার্ল্ডকে ঘোষণা করেছে
Mega Casino World Anrich Nortje কে নতুন ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে ঘোষণা করেছে
MCW Sports Joins Gladiators’ Family as Platinum Sponsor for PSL8
MCW Sports - Ambassador